মানুষের নাম এখন ব্যাঙ্গাত্ব ও হাসিঠাট্টার বিষয়

Home/মানুষের নাম এখন ব্যাঙ্গাত্ব ও হাসিঠাট্টার বিষয়

মানুষের নাম এখন ব্যাঙ্গাত্ব ও হাসিঠাট্টার বিষয়

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু নাম এখন ট্রল ও হাসিঠাট্টার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। যেমন ধরেন, উত্তর বঙ্গের মানুষদেরকে “মফিজ” বলে সম্বোধন করা হলেও এখন টিভি নাটকেও এই নামকে ব্যাঙ্গাত্বকভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে! অথচ , আরবীতে “মফিজ” শব্দের অর্থ হচ্ছে সফলকাম হওয়া। অর্থাৎ পরকালের সফলতা বুঝাতেই “মফিজ” শব্দটি ব্যবহৃত হয়।

যে কাউকে বোকা বা গাধা বোঝাতে অহরহ “আবুল” নামটি ব্যবহার করা হচ্ছে! অথচ রাসুলুল্লাহ (সাঃ) এর উপনাম হচ্ছে আবুল কাসেম। যার অর্থ হল “কাশেমের পিতা”। আশ্চর্য, এই মহাসম্মানীত নামকে নিয়েও আমরা ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করতে ছাড়ছি না!

“মোখলেস” নামটি ‘ইখলাস’ শব্দ থেকে এসেছে। যার অর্থ, আল্লাহর নিকট একনিষ্ঠভাবে ইবাদত করা। অথচ এই নামকেই আমরা সবচেয়ে বেশী ঠাট্টার উপকরন বানিয়ে ফেলেছি!

“কুদ্দুস” আল্লাহর একটি গুনবাচক নাম। যার অর্থ ‘মহাপবিত্র’। একটু ভাবি, আমরা না বুঝে আল্লাহর এই নামটিকে নিয়ে এতদিন কতই না মজা করেছি!

কথায় কথায় “কস কি মোমিন” বলে ঠাট্টা-বিদ্রুপ করছি! অথচ একজন খাঁটি ঈমানদার ব্যাক্তিকেই মুমিন বলা হয়।

আল্লাহ রাব্বুল আলামীন বলেন-

“মুমিনগণ, কেউ যেন অপর কাউকে উপহাস না করে। কেননা, সে উপহাসকারী অপেক্ষা উত্তম হতে পারে এবং কোন নারী অপর নারীকেও যেন উপহাস না করে। কেননা, সে উপহাসকারিণী অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ হতে পারে। তোমরা একে অপরের প্রতি দোষারোপ করো না এবং একে অপরকে মন্দ নামে ডেকো না। কেউ বিশ্বাস স্থাপন করলে তাদের মন্দ নামে ডাকা গোনাহ। যারা এহেন কাজ থেকে তওবা না করে তারাই যালেম।” (সূরা আল হুজরাত, আয়াত- ১১)

হে পরম করুণাময় আল্লাহ। আমরা না বুঝে এতদিন যে সমস্ত গুনাহ করেছি তুমি আপন রহমতে আমাদেরকে ক্ষমা করে দাও। হে আল্লাহ, আমাদেরকে যালেমের অন্তর্ভুক্ত করো না এবং জাহান্নামের কঠিন আযাব থেকে আমাদেরকে রক্ষা কর।

২৪হেল্পলাইন.কম/এপ্রিল,২০১৮/রুমি

By | 2018-05-12T10:27:53+00:00 April 17th, 2018|0 Comments

Leave A Comment